সংজ্ঞা

28 পোস্ট

কারেন্ট

পদার্থের মধ্যকার মুক্ত ইলেকট্রন সমূহের একটি নির্দিষ্ট দিকে প্রবাহিত হওয়ার হারকে কারেন্ট বলে। একটি কন্ডাক্টরের দুই প্রান্তে ভোল্টেজ বিরাজমান থাকলে, ইলেকট্রিক চার্জ প্রবাহিত হয়। বৈদ্যুতিক সার্কিটে কন্ডাক্টরের মধ্যে এই চার্জ ইলেকট্রন, ইলেকট্রোলাইটিকে আয়নের মাধ্যমে এবং প্লাজমাতে আয়ন এবং ইলেকট্রনের মাধ্যমে প্রবাহিত হয়। কারেন্টের একক এমপিয়ার। একে এমিটার দিয়ে পরিমাপ করা […]

এ.সি. কারেন্ট বা পরিবর্তী তড়িৎ প্রবাহ (AC Current)

এ.সি. কারেন্ট বা অলটারনেটিং কারেন্টের বাংলা নাম পরিবর্তী তড়িৎ প্রবাহ। যে কারেন্ট প্রবাহের মান একটা নির্দিষ্ট সময় পরপর একটা নির্দিষ্ট সাইকেল অনুসরণ করে অনবরত পরিবর্তন হতে থাকে তাকে এ.সি. কারেন্ট বলে। একটি সাইকেলের দুইটি অর্ধাংশ থাকে, তাই পাশাপাশি দুটি অর্ধাংশের অভিমুখ একটি অন্যটির বিপরীত হয়।

লিকেজ কারেন্ট (Leakage Current)

ডায়োডে রিভার্স বায়াস প্রয়োগ করলে পি-রিজিয়ন এবং এন-রিজিয়নের মাইনোরিটি চার্জ ক্যারিয়ারের জন্য জাংশনে অতি সামান্য কারেন্ট প্রবাহিত হয়, একে লিকেজ কারেন্ট বলে। সিলিকনের ক্ষেত্রে এই কারেন্ট ন্যানো অ্যাম্পিয়ার এবং জার্মেনিয়ামের ক্ষেত্রে মাইক্রো অ্যাম্পিয়ার। লিকেজ কারেন্ট তাপমাত্রা, ডোপিং, ভোল্টেজ এবং জাংশনের আকারের উপর নির্ভর করে।

পালসেটিং ডি.সি. (Pulsating DC)

রেকটিফায়ারের আউটপুট থেকে যে ডি.সি. পাওয়া যায় তা পিওর ডি.সি. নয়, এতে এ.সি. মিশ্রিত থাকে, একে পালসেটিং ডি.সি. বলে। এ.সি. মিশ্রিত থাকায় এই কারেন্ট, সেনসেটিভ সার্কিটে ব্যবহার করা যায় না। একে পরিশুদ্ধ করার জন্য রেকটিফায়ার ব্যাবহার করতে হয়।

বৈদ্যুতিক ফ্লাক্স বা ইলেকট্রিক ফ্লাক্স (Electric flux)

একটি পজেটিভ চার্জ হতে বাইরের দিকে প্রবাহিত মোট বৈদ্যুতিক বল রেখাকে বৈদ্যুতিক ফ্লাক্স বা ইলেকট্রিক ফ্লাক্স বলে। ইলেকট্রিক ফ্লাক্সের প্রতীক ψ এবং একক কুলম্ব।

ডাই ইলেকট্রিক পদার্থ (Dielectric Material)

ডাই ইলেকট্রিক শব্দের অর্থ অপরিবাহী। যে সকল পদার্থ বিদ্যুৎ পরিবাহী নয়, মুক্ত ইলেকট্রন নেই এবং বৈদ্যুতিক শক্তিকে সঞ্চয় করে রাখতে পারে তাকে ডাই ইলেকট্রিক পদার্থ বলে।

ডাই ইলেকট্রিক কনস্ট্যান্ট (Dielectric Constant)

একটি ক্যাপাসটরের প্লেট সমূহের মধ্যবর্তী বৈদ্যুতিক বলরেখা গুলোকে কেন্দ্রীভূত করার ডাই ইলেকট্রিক পদার্থের সামর্থকে ডাই ইলেকট্রিক কনস্ট্যান্ট বলে। এর প্রতিক εr

বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র প্রাবাল্য বা বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র শক্তি বা ইলেকট্রিক ফিল্ড ইনটেনসিটি (Electric Field Intensity)

কোন বৈদ্যুতিক ক্ষেত্রের একটি বিন্দুতে একটি একক পজেটিভ চার্জ স্থাপন করলে ঐ বিন্দুতে ক্রিয়াশীল বলকে বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র প্রাবাল্য বা বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র শক্তি বলে। এর একক নিউটন/কুলম্ব। \(\begin{align*} &\text{ইলেকট্রিক ফিল্ড ইনটেনসিটি} && =E,\\ &\text{চার্জ }&& =Q \text{ এবং}\\ &\text{বল }&& =F \text{ হলে,}\\ & & E& = \frac{F}{Q} \text{ নিউটন/কুলম্ব}\\ \end{align*}\)

ক্যাপাসিট্যান্স (Capacitance)

ক্যাপাসিটরের দুইটি প্লেটের মধ্যে বৈদ্যুতিক শক্তি সঞ্চয় করে রাখার ধর্ম ক্যাপাসিট্যান্স। এর প্রতিক C এবং একক ফ্যারাডে। \(\begin{align*} &\text{চার্জ }&&= Q \text{ এবং }\\ &\text{ভোল্ট }&& = V \text{ হলে, }\\ & & C& = \frac{Q}{V}\\ \end{align*}\)